কলেজে ঢুকে অধ্যক্ষকে হাতুড়িপেটা করল বহিরাগতরা

../news_img/58111 mmm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: বহিরাগতদের হাতুড়িপেটায় গুরুতর আহত হয়েছেন এক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ। শনিবার সকালে নাটোরের বাগাতিপাড়ায় চাঁদপুর বিএম কলেজের ভেতরে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত অধ্যক্ষ লুৎফর রহমানকে (৫৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ওই কলেজে অধ্যক্ষের নিয়োগ জটিলতা নিয়ে আভ্যন্তরীণ বিবাদ রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ লুৎফর রহমান ওই দিন সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কলেজে প্রবেশ করেন। এর কিছুক্ষণের মধ্যে সাত-আটজন বহিরাগত কলেজে প্রবেশ করে এবং তাদের হাতে থাকা হাতুড়ি দিয়ে লুৎফর রহমানকে বেধড়ক মারধোর করে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। গুরুতর আহতবস্থায় উদ্ধার করে লুৎফর রহমানকে স্থানীয়রা বাগাতিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। তবে অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে ।

সুত্র আরও জানায়, ওই কলেজের অধ্যক্ষ মকবুল হোসেনের নিয়োগ জটিলতা নিয়ে গত বছরের ১৯ জানুয়ারি গভর্নিং বডির সভাপতি তৎকালীন ইউএনও অধ্যক্ষের পদ থেকে তাকে অব্যহতি প্রদান করে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে লুৎফর রহমানকে দায়িত্ব দেন। তখন থেকেই দুপক্ষের মধ্যে বিবাদ চলছে। সর্বশেষে ওই কলেজের তিনটি কক্ষে তালা দেওয়াকে কেন্দ্র করে গত ২ জানুয়ারি উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।

এ ঘটনায় মকবুল হোসেন বলেন, অধ্যক্ষ পদ থেকে তাকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে এমন কোনো চিঠি তিনি পাননি। তবে নিরাপত্তার অভাবে তিনি দীর্ঘদিন থেকে কলেজে প্রবেশ করতে পারেন না। তা ছাড়া লুৎফর রহমানকে হাতুড়িপেটা সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন ।

এ ব্যাপারে বাগাতিপাড়া থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, খবর পেয়ে কলেজে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। কলেজের আভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে হাতুড়িপেটার ঘটনা ঘটতে পারে। তিনি বলেন, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে গভর্নিং বডির সভাপতি ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মেরিনা সুলতানা বলেন, খবর পেয়ে তিনি ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে হাসপাতালে দেখতে গিয়েছিলেন। তবে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।