সিলেটের ওসমানীনগরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে দফায় দফায় সংঘর্ষ: আহত ২০জন

../news_img/58147 mmm.jpg

ওসমানীনগর(সিলেট)প্রতিনিধি :: সিলেটের ওসমানীনগরে ছাত্র লীগের বিবেদমান দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২০জন আহত হয়েছে। সোমবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের তাজপুর বাজারে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালে চলাকালে মহাসড়কে প্রায় এক ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে  ওসমানীনগর থানা পুলিশ ৬ রাউন্ট শর্টগানের গুলো ছুঢ়েছে বলে নিশ্চিত করেন ওসমানীনগর থানার ওসি(তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলাম।

আহতরা হলেন, চঞ্চল পাল, চয়ন পাল, সুজিত, কাজল, রাসেল, সুসান্ত, অজয়, সুজন, সিজিত, জুয়েল, রাসেল, শিপন, টিপু, জুনেদ, নাইম, টিটু সহ ২০জন। আহতদের স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

পুলিশ ও প্রত্যকদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল সোমবার দুপুরে তাজপুর ডিগ্রি কলেজ ছুটির পর সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান সমর্তিত ছাত্রলীগের হাম্মানের সাথে যুক্তরাজ্য আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান সমর্থিত ছাত্রলীগ কর্মি মনজুরের সাথে গায়ে ধাক্কা লাগা নিয়ে কথাকাটা কাটির এক পর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে কলেজে সংঘর্ষ হলে এ সময় মনজুর আহত হয়। এ ঘটনার জের ধরে দুপুর ২টার দিকে ছাত্রলীগের আনোয়ার সমর্থককরা সংঘবদ্ধ হয়ে লাটিসোটা নিয়ে তাজপুর বাজারে শফিক চৌধুরী গ্রুপের যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অরুনোদয় পাল ঝলকের ব্যবসা প্রতিষ্টান অয়ন ড্রাগ হাউস ভাংচুর করে।  দুপুর আড়াইটার দিকে উভয় গ্রুপ শক্তি বৃদ্ধি করে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের ওপর সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। উভয়ের মধ্যে প্রায় ঘন্টা ব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে। এ সময় উভয় গ্রুপের প্রায় ২০জন আহত হয়। সংঘর্ষ চলাকালে মহাসড়কে যানচলাচল প্রায় ১ ঘন্টা বন্ধ থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আহতে পুলিশ ৬ রাউন্ড শর্টগানের গুরি ছুড়ে।

ওসমানীনগর থানার ওসি(তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ের রয়েছে। সংঘর্ষ থামাতে পুলিশের পক্ষ থেকে ৬ রাউন্ট শর্টগানের গুলি ছুড়া হয়েছে।