আফগানিস্তানে মাদ্রাসায় বিমান হামলায় নিহত ৩০

../news_img/59929 mrini.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলের কুন্দুজ প্রদেশে একটি মাদ্রাসায় সন্দেহভাজন তালেবান জমায়েতে সামরিক বাহিনীর বিমান হামলায় ৩০ জন নিহত ও বহুলোক আহত হয়েছেন।

তবে তালেবান জানিয়েছে, সোমবার স্নাতক সমাপনী অনুষ্ঠানে ওই হামলায় কয়েক ডজন বেসামরিক লোক হতাহত হয়েছেন।

মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতের সংখ্যা নিরূপণ করা সম্ভব নয়। স্থানীয় হাসপাতালে হামলায় আহত ব্যাপকসংখ্যক শিশুকে চিকিৎসা নিতে দেখা গেছে। এতে বোঝা যাচ্ছে, সেখানে বেসামরিক লোকজনও ছিল।

দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ রাদমানিশ বলেন, দাস্তি আর্জি জেলায় ওই বিমান হামলায় ৩০ তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। যার মধ্যে ৯ জনই ছিলেন কমান্ডার পর্যায়ের।

তিনি বলেন, তালেবানের ওই প্রশিক্ষণকেন্দ্রে বোমা হামলায় বেসামরিক লোকজন ছিলেন কিনা, তা আমি নিশ্চিত করে বলতে পারব না। সেখানে ব্যাপকসংখ্যক তালেবান যোদ্ধা জড়ো হয়েছিলেন। তারা একটি সামরিক কুচকাওয়াজের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

তালেবান বলেছে, একটি মাদ্রাসায় বিমান হামলা চালানো হয়েছে। এতে শতাধিক আলেম ও শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী মোহাম্মদ ইসহাক জানিয়েছেন, 'তারা বোমা ফেলেছে’ বলে চিৎকার করছিল কয়েকটি শিশু, কিন্তু বড়রা তাদের শান্ত থাকতে বলেন এবং ‘কিছুই হবে না’ বলে আশ্বাস দেন; আর তখনই বোমাগুলো মসজিদে আঘাত করে।

মাদ্রাসাটিতে স্নাতক সনদ প্রদান অনুষ্ঠান চলছিল এবং সেখানে উপস্থিতদের মধ্যে বেসামরিক, মাদ্রাসাছাত্র ও তালেবান যোদ্ধারা ছিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

ওই এলাকায় মার্কিন বাহিনী কোনো আক্রমণ পরিচালনা করেনি বলে দাবি করেছেন আফগানিস্তানে মোতায়েন মার্কিন বাহিনীর মুখপাত্র লিসা গার্সিয়া।

দক্ষিণ হেলমান্দ প্রদেশে আরেকটি দুর্ঘটনায় ৪৮ স্কুলশিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। প্রাদেশিক কর্তৃপক্ষ সেখানে ব্যাপক বিষক্রিয়ার সন্দেহ করেছেন।