এইচ-১বি ভিসা কোটায় বড় পরিবর্তন আসছে

../news_img/60081 mrini.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: যুক্তরাষ্ট্রের এইচ-১বি ভিসা কোটায় বড় পরিবর্তন আনা হচ্ছে। এই ভিসায় ২০১৯ সালের অর্থবছরে নয়টি বড় পরিবর্তন আসছে। তবে নয়টি বড় পরিবর্তন কী, তা সুনির্দিষ্ট করা হয়নি।

ইউএসসিআইএসের বরাতে টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন সোমবার জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র নাগরিকত্ব ও অভিবাসনসেবা (ইউএসসিআইএস) ২০১৯ সালের অর্থবছরের জন্য কংগ্রেস অনুমোদিত সর্বোচ্চ ৬৫ হাজার এইচ-১বি ভিসার জন্য পর্যাপ্ত আবেদন পেয়েছে। এ জন্য চলতি বছরের ১ অক্টোবর থেকে কাজ শুরু হবে।

এ বছর এইচ-১বি ভিসি প্রার্থীরা সবচেয়ে বেশি জটিল প্রক্রিয়া মোকাবিলা করবেন।

ইউএসসিআইএস ঘোষণা করেছে, এইচ-১বি ভিসার জন্য একাধিক আবেদন করা হয়েছে—এমন সব দরখাস্ত বাতিল করা হবে। যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন কর্তৃপক্ষ এক নতুন নীতি স্মারকে বলেছে, কোনো ব্যক্তির পক্ষে ‘সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের’ করা একাধিক আবেদন বা অনুমোদিত ভিসা বাতিল বা আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হবে। স্মারকে বলা হয়, এ ধরনের আবেদন লটারির বিশ্বাসযোগ্যতা ক্ষুণ্ন করে।
এটি শুধু এইচ-১বি ভিসাধারীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। এই নিয়ম যুক্তরাষ্ট্রের সব অনভিবাসী ভিসার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। ‘বাছাইপ্রক্রিয়া’র অংশ হিসাব সব ভিসি আবেদনকারীকে তাঁদের পুরোনো ফোন নম্বর, ই-মেইল নম্বর এবং সোশ্যাল মিডিয়ার ইতিহাস লিপিবদ্ধ করতে হবে। সব আবেদনকারীকে আগের পাঁচ বছরে তাঁদের ব্যবহার করা ফোন ও মোবাইল নম্বর জানাতে হবে।

এইচ-১বি ভিসা শুধু সুনির্দিষ্ট কাজের মেয়াদের জন্য মঞ্জুর করা হবে।

বর্তমানে এই ভিসা তিন বছরের জন্য কার্যকর থাকে এবং প্রায় সব সময়েই আরও তিন বছরের জন্য বাড়ানো হয়।