কবরী লাঞ্ছিত! থানায় জিডি

../news_img/60095 mrini.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: সাবেক সাংসদ ও চিত্রনায়িকা সারাহ বেগম কবরীকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার গুলশান ২ নম্বরে তাঁর বাড়ির নিচতলায় তাঁকে লাঞ্ছিত করা হয়। এ ঘটনায় তিনি গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

জিডিতে বলা হয়, কবরী গুলশান ২ নম্বরের একটি পাঁচতলা ভবনে থাকেন। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে ওই ভবনের দুটি ফ্ল্যাটের মালিকের কর্মচারীরা পাঁচ-ছয়জন বহিরাগত লোক নিয়ে ভবনের ভেতরে ঢুকতে গেলে কর্তব্যরত তত্ত্বাবধায়ক ও নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁদের বাধা দেন। এ সময় বহিরাগতরা বাড়িতে রং করবেন বলে জোর করে ভেতরে ঢোকেন। তাঁদের হাতে দড়ি ও বাঁশ ছিল। কেয়ারটেকার ঘটনাটি কবরীকে জানালে তিনি ও তাঁর ছেলে বাড়ির নিচে নেমে বহিরাগতদের কাছে জোর করে প্রবেশের কারণ জানতে চান। তখন তাঁরা বাড়ি রং করার কথা বলেন।

জিডিতে কবরী উল্লেখ করেন, বাড়িটি নিয়ে আদালতে মামলা আছে এবং আদালতের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই বাড়িতে রং করা যাবে না। একপর্যায়ে বহিরাগতরা কবরীর ওপর চড়াও হন, তাঁকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন এবং মেরে ফেলার হুমকি দেন। কবরী তাঁর অফিসের কর্মচারীদের খবর দিয়ে দ্রুত পাঁচতলার তাঁর ফ্ল্যাটে আশ্রয় নেন।

মঙ্গলবার রাতে যোগাযোগ করা হলে কবরী  বলেন, বাড়ির জমিটি তাঁর। তিনি একটি আবাসন প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে পাঁচতলা বাড়িটি নির্মাণ করিয়েছেন। দুটি ফ্ল্যাটের মালিকেরা সার্ভিস চার্জ দিচ্ছেন না। নারায়ণগঞ্জের এক প্রভাবশালী ব্যক্তির সহযোগিতায় তাঁরা বাড়িটি দখলের পাঁয়তারা করে আসছিলেন। এ ঘটনায় কবরী মামলা করার পর আদালত তা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বাড়িতে কোনো কিছু করা যাবে না বলে আদেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু দুই ফ্ল্যাটের মালিক তা মানছিলেন না।

গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক  বলেন, কবরীর অভিযোগটি জিডি হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে।