ছাত্রীর রগকাটা নিয়ে স্ট্যাটাসে যে দাবি করলেন নাজমুল!

../news_img/60103 mrini.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশ নেওয়া ছাত্রীর রগ কাটা নিয়ে নিজের ফেসবুক পেজে যা বললনে সিদ্দিকী নাজমুল আলম, তা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল-

হায়রে গুজব! হায়রে দরদ! সারারাত জেগে থেকে পরিচিত ছোট ভাই বোনদের সঙ্গে মোবাইলে কথা বললাম। প্রকৃত ঘটনা হল, এই যে সুফিয়া কামাল হলের যে বোনটির রগ কেটে দেওয়া হয়েছে বলে গুজব ছড়ানো হল, তার নাম হচ্ছে মুর্শেদা । সে হল সভাপতির মাধ্যমেই হলে উঠেছিল। সে হল সভাপতির খুবই ঘনিষ্ঠ। সে কবি সুফিয়া কামাল হল ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি। বেশ কিছুদিন যাবতই তাদের সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিল না। হল রাজনীতেতে যেটা হয় আর কি?

আজকে হল সভাপতি ঐ মেয়েকে হয়তোবা বকাঝকা করেছে, রুমে ডেকে তখন সে ক্ষোভে কাচের দরজায় লাথি দিলে তার পা কেটে যায়। রক্ত দেখে চিৎকার করলে কিছু সুযোগ সন্ধানীরা রগ কাটা হয়েছে বলে প্রচার চালিয়ে মুহূর্তের মধ্যেই পরিস্থিতি অস্থির করে তোলে বাঁশেরকেল্লাসহ নানা পেজের মাধ্যমে।

এখন কথা হলো কেমন গুজবের মধ্যে দিয়ে সুযোগ সন্ধানীরা অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। নিজের সংগঠনের আভ্যন্তরীণ ঝামেলাকেও আন্দোলনকারীদের উপর হামলা বলে চালিয়ে দেওয়া হলো এবং কতো কিছু ঘটে গেল। আহারে খুব মায়া হচ্ছে, আমার প্রিয় বিদ্যাপীঠের ভাই বোনদের জন্য, এই ভেবে যে আপনারা দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের শিক্ষার্থী হয়েও গুজবের পিছনে ছুটে চলেছেন এবং ভয়ঙ্কর ফাঁদে পা দিচ্ছেন।

শতভাগ নিশ্চয়তা দিতে পারি, আপনার আমার বিদ্যাপীঠের সাবেক শিক্ষার্থী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ছাত্র সমাজের জন্য সঠিক সিদ্ধান্তটিই নিবেন।১৯৭১ এ জাতির জনকের উপর আস্থা রেখে বাঙালি ভুল করেনি, ঠিক তেমনি ২০১৮ তে এসে জাতির জনকের কন্যার উপর আস্থা রাখুন। দেশের জন্য ভালো হবে। হল সভাপতির সাথে মুর্শেদার বিভিন্ন সময়ের ছবিগুলো দিলাম প্রমাণ হিসেবে।