বড়লেখায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষক আটক

../news_img/60111 mrini.jpg

লিটন শরীফ, বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় সাত বছরের এক কন্যা শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার নাম জাহাঙ্গীর আলম (১৯)। সে উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের ইসলামনগর (বোবারথল) গ্রামের আব্দুল লোকমানের ছেলে। গত (১০ এপ্রিল) মঙ্গলবার বেলা একটার দিকে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুর বারোটার দিকে স্কুল শেষে সহপাঠিদের সঙ্গে শিশুটি বাড়ি ফিরছিল। কড়ইছড়া গ্রামের মসজিদের সামনে আসামাত্র আগে থেকে সেখানে ওঁৎ পেতে থাকা জাহাঙ্গীর আলম (১৯) শিশুটির গতিরোধ করে। সে শিশুটিকে ফুসলিয়ে নির্জন একটি স্থানে নিয়ে গিয়ে হাত-পা, মুখ ও চোখ বেঁধে ধর্ষণ করে। পরে শিশুটির হাত-পা, মুখ ও চোখের বাধন খুলে দিয়ে সে পালিয়ে যায়। শিশুটি সেখান থেকে কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি ফিরে তার মাকে বিষয়টি জানায়। তার মা বিষয়টি স্থানীয়দের জানানোর পর তারা পুলিশে খবর দেন। 

খবর পেয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম এলাকায় গিয়ে ওইদিন (মঙ্গলবার) রাতের দিকে স্থানীয়দের সহায়তায় জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেপ্তার করেন। শিশুটিকে প্রথমে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে এনে ভর্তি করা হয়। পরে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে সিলেট ‘ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে’ পাঠানো হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতেই শিশুটির মা জাহাঙ্গীর আলমকে আসামি করে বড়লেখা থানায় ধর্ষণ মামলা করেন।

বড়লেখা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মুহাম্মদ সহিদুর রহমান বুধবার (১১ এপ্রিল)  বলেন, ‘এই ঘটনায় আসামি গ্রেপ্তার ও মামলা হয়েছে। আসামি জাহাঙ্গীর আলমকে আদালতের মাধ্যমে বুধবার জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।