কক্সবাজারে ৮ লাখ ইয়াবা জব্দ, আটক ৪

../news_img/60375 mrini.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: কক্সবাজারের টেকনাফে পৃথক অভিযান চালিয়ে ৮ লাখ ১০ হাজার ইয়াবা জব্দ করেছে পুলিশ ও কোস্টগার্ড সদস্যরা। এ সময় ডাম্পার গাড়ি, ট্রলারসহ চারজনকে আটক করা হয়। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ও গভীর রাতে দুটি অভিযানে এই বিপুল পরিমাণ ইয়াবা জব্দ করা হয়।

গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে সেন্ট মার্টিন জেটিঘাট এলাকা থেকে একটি ট্রলার থেকে তিন লাখ ৬০ হাজার ইয়াবাসহ চারজনকে আটক করা হয়। এরপর দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের রাজারছড়া এলাকা থেকে পুলিশ একটি ডাম্পার গাড়িসহ ৪ লাখ ৫০ হাজার ইয়াবা জব্দ করে। তবে সেখান থেকে কোনো পাচারকারীকে আটক করা যায়নি।

এ দুটি অভিযানের সত্যতা প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা (অপারেশন কর্মকর্তা) রাজু আহমদ ও সেন্ট মার্টিনের কোস্টগার্ড স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট ফয়সাল বিন রশিদ।

আটক ব্যক্তিরা হলেন নয়াপাড়ার জমির আহমেদের ছেলে লুৎফর রহমান (৩৪), শাহ আলমের ছেলে রফিক আহমদ (৩২), আবদুস সালামের ছেলে মো. কাশেম (৩৭) ও আবদুল মজিদের ছেলে ট্রলারের মাঝি সুলতান আহমদ (৪০)।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে সেন্ট মার্টিনের কোস্টগার্ড স্টেশনের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট ফয়সাল বিন রশিদের নেতৃত্বে একটি টহল দল সেন্ট মার্টিন জেটিঘাট এলাকায় একটি ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে ৩ লাখ ৬০ হাজার ইয়াবা জব্দ করে। ওই সময় ট্রলারে থাকা চারজন ও ট্রলারটি জব্দ করা হয়। আজ মঙ্গলবার জব্দ করা ট্রলার ও ইয়াবাসহ আটক চার ব্যক্তিকে টেকনাফ থানার পুলিশের কাছে সোপর্দ করে মামলা করা হবে বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে, গোপন সূত্রে ইয়াবার বড় চালানের খবর পেয়ে অভিযানে যায় পুলিশ। গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা (অপারেশন কর্মকর্তা) রাজু আহমদের নেতৃত্বে পুলিশের একটি বিশেষ দল টেকনাফ সদর ইউনিয়নের রাজারছড়া এলাকায় বালু পরিবহনের কাজে নিয়োজিত ডাম্পার একটি গাড়িকে থামার সংকেত দিলে চালক গাড়িটি ফেলে পালিয়ে যান। পরে গাড়ির ভেতর থেকে তিনটি বস্তায় থাকা ৪ লাখ ৫০ হাজার ইয়াবা জব্দ করা হয়। ডাম্পার গাড়িটিও জব্দ করা হয়েছে।