কলেজছাত্র রাজীবের মৃত্যু: তদন্ত প্রতিবেদন ১০ জুন

../news_img/60508 mrini.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: কারওয়ান বাজারে দুই বাসের রেষারেষিতে কলেজছাত্র রাজীব হোসেনের মৃত্যুর ঘটনায় হওয়া মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমার তারিখ পিছিয়ে আগামী ১০ জুন ধার্য করেছে আদালত।

বুধবার নির্ধারিত দিনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার এসআই আফতাব আলী প্রতিবেদন দিতে পারেননি।

পরে ঢাকা মহানগর হাকিম গোলাম নবী ১০ জুন নতুন তারিখ ঠিক করে দেন।

গত ৩ এপ্রিল কারওয়ান বাজারে বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহনের রেষারেষিতে বিআরটিসির যাত্রী রাজীবের ডান কনুইয়ের ওপর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তার মাথার সামনে-পেছনের হাড় ভেঙে যাওয়া ছাড়াও মস্তিষ্কের সামনের দিকে আঘাত লাগে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৭ এপ্রিল রাতে সরকারি তিতুমীর কলেজের এই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়।

ওই ঘটনায় বেপোরোয়া গাড়ি চালানো এবং গুরুতর আহত করার অভিযোগে দণ্ডবিধির ২৭৯/ ৩৩৮(ক) ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলায় বিআরটিসি বাসের চালক ওয়াহিদ ও স্বজন বাসের চালক খোরশেদকে আসামি করা হয়।

২৭৯ ধারার সর্বোচ্চ তিন বছর কারাদণ্ড, পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড দেওয়া যায়। আর ৩৩৮(ক) ধারার দুই বছরের কারাদণ্ড, অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড হতে পারে।

বুধবার সংশ্লিষ্ট আদালত পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই মাহমুদুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “রাজীবের মৃত্যুর পর মামলাটিতে দণ্ডবিধির ৩০৪ (খ) ধারাও যুক্ত করা হয়েছে।”

এই ধারায় সর্বোচ্চ তিন বছর কারাদণ্ড, অর্থদণ্ড অথবা উভয়দণ্ডের বিধান রয়েছে বলে তিনি জানান।

গত ৫ এপ্রিল এ দুই আসামিকে দুইদিনের রিমান্ডে পাঠায় আদালত। রিমান্ড শেষে ৮ এপ্রিল তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

এসআই মাহমুদুর জানান, আসামিদের পক্ষে বৃহস্পতিবার জামিন শুনানির জন্য দিন রাখা হয়েছে। এ দিন গাড়ির জিম্মার বিষয়েও শুনানির দিন ঠিক করে দিয়েছেন মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার।