ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ভোগান্তিতে দু:খ প্রকাশ করলেন সেতুমন্ত্রী

../news_img/60698mm.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক::ফেনী রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ভোগান্তিতে দুঃখ প্রকাশ করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ঈদের আগেই ওভারপাস নির্মাণ শেষ হওয়ার কথা জানান তিনি।

রোববার দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের মন্ত্রী জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর, মেঘনা, গোমতী সেতু নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ের ছ’মাস আগেই ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হবে। ঈদেও কোনো ভোগান্তি থাকবে না।

গত তিন দিন ধরে যানজটে অচল হয়ে আছে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের প্রায় ৪৫ কিলোমিটার এলাকা। পাঁচ মিনিটের পথ পাড়ি দিতে সময় লাগছে চার থেকে পাঁচ ঘন্টা। কুমিল্লার দাউদকান্দি টোলপ্লাজা, মেঘনা ব্রিজ ও ফেনীর রেলক্রসিং এলাকায় ওভারপাসের কারণে পুরো সড়কে যানজট দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন।

ঘন্টার পর ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও ঠাই দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে যানবাহন গুলোকে।আর সেই সাথে যাত্রী দুর্ভোগ চরমে পৌঁছে গেছে। দীর্ঘক্ষন যানজটে বসে থেকে অনেকই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

দুর্ভোগ থেকে বাঁচতে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম অভিমুখের যানবাহনকে মেঘনা ব্রিজ ও দাউদকান্দি টোলপ্লাজা অতিক্রমের পর ফেনীর রেলক্রসিংয়ের তীব্র যানজট এড়াতে কুমিল্লার পদুয়ার বাজার থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ছেড়ে লাকসাম-নোয়াখালী আঞ্চলিক সড়ক হয়ে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে বিকল্প পথে ঘুরে ফেনীর মহিপাল হয়ে চট্টগ্রাম পৌঁছাতে দেখা যায়।

রোববার সকাল থেকে ফেনীর ধুমঘাট সেতু এলাকা থেকে কুমিল্লার পদুয়ার বাজার এলাকা পর্যন্ত তীব্র যানজট দেখা দেয়। শনিবার রাতেও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের প্রায় ৮০ কিলোমিটার এলাকায় দীর্ঘ যানজট ছিল। এতে দুর্ভোগের পাশাপাশি ছিনতাইয়ের শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের।

পরিবহন শ্রমিক ও যাত্রীরা বলেন, পরশু দিন ছিলো বারো আওলীয়া আর এখন আমরা পার হচ্ছি রেল গেট। এই যানজটের কারণে আমরা যখন দাঁড়িয়ে থাকি তখন ছিনতাই হচ্ছে। আজ রাতে আমার সামনের পাঁচ গাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। এছাড়া দোকানদাররা সব জিনিসের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। ২৫ টাকার দ্রব্যের দাম নিচ্ছে ৪০ টাকা।

অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে সব ধরণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ।

ফেনীর মহিপাল হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মো. আলী আকবর খান বলেন, ছিনতাই এবং অনাকাক্ষিত ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্য আমরা সচেষ্ট আছি। সর্বাত্মক চেষ্টা করছি যাতে দ্রুত যানজট করা যায়। যদি বৃষ্টি না হয় তাহলে আশা করি সম্ভব হবে।

এ অবস্থায় যানজট নিরসনে সোমবার সকাল-সন্ধ্যা এবং মঙ্গলবার থেকে প্রতিদিন ৩ ঘণ্টা করে যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রামের আন্তঃজেলা বাস মালিক সমিতি।

চট্টগ্রামের আন্তঃজেলা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কফিল উদ্দিন আহমেদ বলেন, সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত পরিবহন ধর্মঘট হবে। যদি যান চলাচল স্বাভাবিক না হয় তাহলে আমরা প্রতিদিন দুপুর ১২ থেকে ৩টা পর্যন্ত প্রতীকী ধর্মঘট পালন করবো। গেলো এক সপ্তাহ ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থেকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম পর্যন্ত যানজট অব্যাহত আছে।