পাঁচ জেলায় বজ্রপাতে নারী-শিশুসহ ৭ জনের মৃত্যু

../news_img/60647 mri nu.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: দেশের পাঁচ জেলায় বজ্রপাতে নারী ও শিশুসহ সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার রাজশাহী, দিনাজপুর, কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল ও নেত্রকোনা জেলায় এসব বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।

যুগান্তর ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

রাজশাহী ব্যুরো: রাজশাহীতে বজ্রপাতে শিশুসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে দোদাগাড়ী উপজেলার চাঁন্দলাই ও শিমলা গ্রামে আলাদা বজ্রপাতে তাদের মৃত্যু হয়।

মৃত দুজন হলো- চাঁন্দলাই গ্রামের আব্দুল গনির ছেলে মো. আব্দুল্লাহ (৭) ও শিমলা গ্রামের ময়েজ আলীর ছেলে সেলিম হোসেন (৩০)।

গোদাগাড়ী থানার ওসি আলতাব হোসেন জানান, বাড়ির বাইরে খেলছিল শিশু আব্দুল্লাহ। আর মাঠে কাজ করছিলেন সেলিম। এ সময় বজ্রপাত হলে তারা ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ নিয়ে থানায় দুটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের হয়েছে।

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: বিরামপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী কাটলা ইউনিয়নের দক্ষিণ হরিরামপুর গ্রামে মঙ্গলবার দুপুরে ধান শুকানোর সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাতে কার্তিকী বালা (৫৫) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি ওই গ্রামের মৃত নিবাস চন্দ্র রায়ের স্ত্রী।

উপজেলার কাটলা ইউপি চেয়ারম্যান নাজির হোসেন বলেন, বাড়ির পাশে ধান শুকানোর সময় বজ্রপাতে কার্তিকী বালা গুরুতর আহত হন। হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু ঘটেছে।

হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে বজ্রপাতে এখলাস (১৪) নামে কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সে উপজেলার শাহেদল ইউনিয়নের নামা শাহেদল গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকালে এখলাস বাড়ির পাশেই দাঁড়িয়ে ছিল। এ সময় বজ্রপাতে সে মারাত্মক আহত হন। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে বজ্রপাতে নূরজাহান (৫০) নামের এক নারীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বাড়ির পাশে কাজ করার সময় তার উপর বজ্রপাত হয়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়েছে।

নূরজাহান ধনবাড়ী উপজেলার পাইস্কা ইউনিয়নের পাইটকা গ্রামের জনৈক ইদ্রিস আলীর স্ত্রী।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজীব আল রানা বজ্রপাতের ঘটনায় ওই নারীর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে জানান, ধনবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা সিদ্দিকা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের খোঁজখবর নিয়ে তাৎক্ষণিক নিহতের পরিবারকে পাঁচ হাজার টাকা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছেন।

মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি: নেত্রকোনার মদন উপজেলার পার্শ্ববর্তী খালিয়াজুরী উপজেলায় মঙ্গলবার দুপুরে বজ্রপাতে ইসলাম উদ্দিন নামে (৫৫) এক ধানকাটা শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি গাজীপুর ইউনিয়নের গাজীপুর গ্রামে।

এলাকাবাসী জানান, উপজেলার বারআরা কান্দা হাওরে বোরো ধানকাটার সময় তিনি বজ্রপাতের শিকার হলে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান। এ সময় তার ছেলেরাও তার সঙ্গে অদূরে কাজ করছিলেন।

নেত্রকোনা প্রতিনিধি

নেত্রকোনার পূর্বধলার সাওদকান্দি গ্রামসংলগ্ন হাওরে বজ্রপাতের আঘাতে আবদুল হেকিম (৪৫) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিহত আবদুল হেকিম সাওদকান্দি গ্রামের সমের আলীর ছেলে।

পূর্বধলা থানার ওসি মো. বিল্লাল উদ্দিন বলেন, আবদুল হেকিম হাওর থেকে গরু আনতে গিয়ে বজ্রপাতে মারা যান। তার লাশ স্বজনদের দেয়া হয়েছে।