হঠাৎ স্বর্ণের বাজারে ব্যাপক ধস, প্রতি ভরি স্বর্ণের বর্তমান দাম কত জানেন?

../news_img/60863 mri nu.jpg

মুদুভাষণ ডেস্ক: হঠাৎ স্বর্ণের বাজারে ব্যাপক ধস, বিশ্ববাজারে তেজ হারিয়েছে, দাম ৫ মাসের মধ্যে সর্বনিম্নে !! চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার বাণিজ্য যুদ্ধের ‘অবসান’ ঘটছে। দুই দিন আগে মার্কিন ও চীন কর্তৃপক্ষ থেকে এ খবর প্রকাশিত হওয়ার পর বিশ্ববাজারে তেজ হারিয়েছে স্বর্ণের বাজার।

রয়টার্সের খবরে বলা হচ্ছে, বাণিজ্য যু্দ্ধ পরিস্থিতি ‘শিথিল’ ও ডলার শক্তিশালী হওয়ার জেরে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম প্রায় ৫ মাসের মধ্যে সর্বনিম্নে নেমে এসেছে।

সাধারণত বাণিজ্য ও রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা দিলে নিরাপদ বিনিয়োগ বলে খ্যাত স্বর্ণের দাম টানা বাড়তে থাকে।

সোমবার দুপুরের দিকে স্পট গোল্ডের দাম দশমিক ৬ শতাংশ কমে আউন্স প্রতি এক হাজার ২৮৩ ডলারে কেনাবেচা হয়। যা দিনের এক সময় আরও দুই ডলারে কমেছিল। এদিকে আগামী জুনে ডেলিভারি হতে যাওয়া ইউএস গোল্ড বিক্রি হয় দশমিক ৭ শতাংশ কমে এক হাজার ২৮২ ডলারে।

থিঙ্ক মার্কেটের প্রধান বাজার বিশ্লেষক নাঈম আসলাম বলছেন, বিশ্বের প্রধান প্রধান বেশ কিছু মুদ্রার বিপরীতে ডলার শক্তিশালী হওয়ার কারণে এখন চাপে আছে স্বর্ণ। যে কারণে মূল্যবান পণ্যটির দাম বাড়ছে।

‘তাছাড়া বিশ্বের দুই প্রধান অর্থনীতির মধ্য বাণিজ্য যুদ্ধ পরিস্থিতি ‘শিথিল’ হওয়াও এ বাজারকে প্রভাবিত করছে।’

দুইদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রে সফরে গিয়ে চীনের উপ-প্রধানমন্ত্রী লিউ হি বলেন, যেকোনো বাণিজ্য যুদ্ধ এবং শুল্ক বৃদ্ধির হুমকি থেকে সরে আসার ব্যাপারে চীন ও যুক্তরাষ্ট্র উভয়পক্ষ সম্মত হয়েছে।

এরপরই বেশকিছু মুদ্রার বিপরীতে ডলার শক্তিশালী হতে থাকে। জাপানের মুদ্রা ইয়েনের বিপরীতে এখন ডলারের মান বেড়েছে গেলো ৫ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চে।

স্বর্ণের বাজার বিশ্লেষণকারী সংবাদ সংস্থা বুলিয়ন ভল্টের তথ্যানুযায়ী, গেলো সপ্তাহে আন্তর্জাতিক বাজারে এক আউন্স স্বর্ণ ছিল এক হাজার ৩২১ ডলার। এর আগে এপ্রিলের মাঝামাঝিতে যা ছিল এক হাজার ৩৫০ ডলার। অর্থাৎ মাত্র এক মাসে এ বাজারে দাম কমেছে প্রায় ৭০ ডলার।

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে স্বর্ণের দাম সমন্বয় করে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি- বাজুস। বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমলে দেশের বাজারেও কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সমিতির সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ১৮ মার্চ থেকে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম রাখা হচ্ছে ৫০ হাজার ৯৫৪ টাকা। আর ২১ ক্যারেটের ভরি নেয়া হচ্ছে ৪৮ হাজার ৬৮০ টাকা। এছাড়া ১৮ ক্যারেট ৪৩ হাজার ৬০৮ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে ২৬ হাজার ৪০৯ টাকা।

বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমার ধারা বজায় থাকলে দেশের বাজারেও শিগগির দাম কমতে পারে।আজ জিয়াউর রহমানের ৩৭তম মৃত্যুবার্ষিকী, ১০ দিনব্যাপী কর্মসূচি


মৃদুভাষণডেস্ক: বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৭তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ বুধবার। ১৯৮১ সালের এই দিনে একদল বিপথগামী সেনা সদস্যের হাতে চট্টগ্রামের সার্কিট হাউজে তিনি নিহত হন। সাবেক রাষ্ট্রপতির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ১০ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি।

বিএনপি ছাড়াও সব অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। তারা এসব কর্মসূচির মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের জেড ফোর্সের অধিনায়ক ও অন্যতম সেক্টর কমান্ডার মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমান বীর উত্তমকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবেন।

জিয়াউর রহমানের শাহাদৎবার্ষিকী উপলক্ষে সকাল ৬টায় নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করার কর্মসূ‌চি ছিল। একইভাবে সারা দেশে দলীয় কার্যালয়গুলোতে শাহাদৎবার্ষিকীর কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ সকাল ১০টায় জিয়াউর রহমানের মাজারে পুষ্পমাল্য অর্পণ, ফাতেহা পাঠ, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, রাজধানীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে দরিদ্রদের মধ্যে কাঙালি ভোজ ও রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে।

দলের কেন্দ্রীয় নেতারা এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন। এ ছাড়া মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে অসহায় দুস্থদের মাঝে ইফতার সামগ্রী ও কাপড় বিতরণ করবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

জিয়াউর রহমানের ৩৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বাণী দিয়েছেন।

বাণীতে বিএনপির এ নেতা বলেন, শহীদ জিয়ার অম্লান আদর্শ, দর্শন ও কর্মসূচি আমাদের স্বাধীনতা রক্ষা, বহুদলীয় গণতন্ত্র এবং দেশীয় উন্নয়ন ও অগ্রগতির রক্ষাকবচ। তাঁর জীবিতকালে জাতির চরম দুঃসময়গুলোতে জিয়াউর রহমান দেশ ও জনগণের পক্ষে অবস্থান গ্রহণ করেন। মহান স্বাধীনতার বীরোচিত ঘোষণা, স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য ভূমিকা এবং রাষ্ট্র গঠনে তাঁর অনন্য কৃতিত্বের কথা আমি গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সেক্টর কমান্ডার হিসেবে জিয়াউর রহমান ‘জেড ফোর্সে’র অধিনায়ক হিসেবে রণাঙ্গনে বীরত্বের সঙ্গে যুদ্ধ করেন তিনি। বীরত্বের স্বীকৃতি স্বরূপ বঙ্গবন্ধু তাকে ‘বীর উত্তম’ খেতাবে ভূষিত করেন। ‘৭৫ পরবর্তী রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসেন তিনি। ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি।