বাড্ডায় রিকশা থামিয়ে তরুণীকে যৌন নিপীড়ন, ২ যুবক রিমান্ডে

../news_img/61246 mri.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: রাজধানীর বাড্ডায় বাসায় ফেরার সময় রিকশা থামিয়ে মায়ের সামনে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া এক তরুণীর ওপর যৌন নিপীড়ন চালিয়েছে স্থানীয় দুই যুবক। তরুণীর মা প্রতিবাদ করলে তাকেও বেধড়ক মারধর করে তারা।

বুধবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ সজল ও জসিম নামে ওই দুই যুবককে গ্রেফতার করে সাত দিনের রিমান্ডে নিয়েছে।

পুলিশ জানায়, বাবা-মায়ের সঙ্গে বাড্ডায় থাকেন ওই তরুণী। বুধবার বিকালে মাকে নিয়ে এলাকার একটি শপিংমলে ঈদের কেনাকাটা করতে যান তিনি। কেনাকাটা শেষে সন্ধ্যায় বাসায় ফেরার পথে দুই যুবক রিকশা থামিয়ে ওই তরুণীর জামাকাপড় ছিঁড়ে তাকে মারধর করে। এ সময় তার মা বাধা দিলে তাকেও বেধড়ক পেটায় তারা।

এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা বুধবার রাতেই বাড্ডা থানায় অভিযোগ দেন। অভিযোগ পাওয়ার পর দুই যুবককে গ্রেফতার করে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ওই ছাত্রীর বাবার অভিযোগ, গ্রেফতার যুবক সজল বখাটে। এলাকায় চাঁদাবাজি করে বেড়ায়। কয়েক মাস ধরে তার মেয়েকে সজল উত্ত্যক্ত করছিল। রিকশা থামিয়ে সজল ও তার সহযোগী জসিম তার মেয়েকে যৌন নিপীড়ন করে।

অভিযোগে তিনি বলেন, শপিং করে ফেরার পথে দুই যুবক রিকশা থামাতে বলে। তার মেয়ে কারণ জানতে চাইলে তারা মেয়ে ও তার স্ত্রীকে গালাগাল করে। এ সময় মেয়েকে সজল তার সঙ্গে যাওয়ার জন্য হাত ধরে টান দেয়। বাধা দিলে সজল তার চশমা খুলে ফেলে দেয় এবং জামা ছিঁড়ে ফেলে। সজলের হাত থেকে মেয়েকে ছাড়িয়ে নিতে গেলে তার বন্ধুরা আমার স্ত্রীকে মাটিতে ফেলে নির্যাতন করে।

বাড্ডা থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী  বলেন, সজলের বিরুদ্ধে অনেক আগে থেকেই নানা অভিযোগ আছে। বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ওই তরুণীকে সে অনেক দিন ধরেই উত্ত্যক্ত করছিল। অভিযোগ পাওয়ার পর দুই যুবককে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।