আমাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করা ছাড়া আর উপায় নেই

../news_img/61293 mri.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তিন দিন ধরে অনশন করছে স্কুলছাত্রী সুমাইয়া খাতুন। এ ঘটনার পর থেকে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে প্রেমিক কাউসার।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ব্রুগাছা ইউনিয়নের রান্ডিলা বাহাদুর গ্রামে।

সুমাইয়া খাতুন (১৪) কাজিপুর উপজেলার রতনকান্দি ইউনিয়নের কুড়ালিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমানের কন্যা এবং স্থানীয় কুড়াইলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

কাউসার (২১) একই উপজেলার ব্রুগাছা ইউনিয়নের রান্ডিলা বাহাদুর গ্রামের আবুসামার ছেলে এবং সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের অর্নাস দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, এক বছর আগে সুমাইয়া খাতুনের সঙ্গে কাউসারের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই মাঝে বিভিন্ন সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সুমাইয়াকে হোটেলে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।

শুক্রবার বিকালে ওই ছাত্রী ঈদের কেনাকাটার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে প্রেমিক কাউসারের বাড়িতে গিয়ে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করে। এ ঘটনার পর থেকে প্রেমিক কাউসার পলাতক রয়েছে।

এলাকাবাসী বলেন, ছেলের পরিবার অত্যন্ত প্রভাশালী হওয়ায় গ্রামের মুরুব্বীদের ম্যানেজ করে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছেন। এটি হলে মেয়েটির সঙ্গে অন্যায় করা হবে।

প্রেমিকা সুমাইয়া খাতুন বলে, কাউসার আমাকে বিয়ে না করলে আমার আত্মহত্যা করা ছাড়া কোনও উপায় নেই।

প্রেমিক কাউসারের বাবা আবুসামার সঙ্গে কথা বলতে গেলে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে অস্বীকার করেন।

ব্রুগাছা ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম সরোয়ার লিটন বলেন, বিষয়টি অবগত হয়েছি। স্থানীয় মেম্বার, মুরুব্বীসহ উভয় পক্ষের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রয়োজনে আইন আদালতের স্বরণাপন্ন হবো