ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ চেয়েছেন বিএনপি নেতারা

../news_img/61368 mri.jpg

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ চেয়ে আবেদন করেছেন বিএনপি মহাসচিবসহ জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ঈদের দিন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছেন। এখন জানি না, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কী করবেন। ঈদের দিন সকালে জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা জেলগেটে যাবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- দলের যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ।

ঈদের দিনে দলের কর্মসূচি জানাতে গিয়ে রুহুল কবির রিজভী বলেন, আমরা প্রত্যেকে বেদনার্ত, আমাদের মনের মধ্যে কষ্ট। যাকে কেন্দ্র করে ঈদের সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠান হতো। এবার ঈদের সেটা হবে না। দেশনেত্রীকে অন্যায়ভাবে কারাগারে রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, ঈদ একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান, খুশির উৎসব। আমাদের মধ্যে ঈদের সেই আনন্দ নেই, খুশি নেই। ঈদের দিন সকালে জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরাসহ নেতাকর্মীরা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করবেন। সেখান থেকে তারা জেলগেটে যাবেন। আমাদের নেতাকর্মীরা অনেকেই বলেছেন নেত্রীর প্রতি মনের টানে তারা জেলগেটে যাবেন। তবে সুনির্দিষ্টভাবে আমাদের ঈদের দিন কোনো কর্মসূচি নেই।

প্রতি বছরই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ঈদের দিন সকালে শেরেবাংলা নগর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে কূটনীতিক, গণমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করতেন। তবে ঈদের দিন খালেদা জিয়ার আত্মীয়স্বজনরা কারাবিধি অনুযায়ীই সাক্ষাতের সুযোগ পাবেন। তারা সকালেই কারাগারে যাবেন বলে জানা গেছে।
ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ চেয়েছেন বিএনপি নেতারা


মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ চেয়ে আবেদন করেছেন বিএনপি মহাসচিবসহ জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ঈদের দিন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছেন। এখন জানি না, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কী করবেন। ঈদের দিন সকালে জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা জেলগেটে যাবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- দলের যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ।

ঈদের দিনে দলের কর্মসূচি জানাতে গিয়ে রুহুল কবির রিজভী বলেন, আমরা প্রত্যেকে বেদনার্ত, আমাদের মনের মধ্যে কষ্ট। যাকে কেন্দ্র করে ঈদের সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠান হতো। এবার ঈদের সেটা হবে না। দেশনেত্রীকে অন্যায়ভাবে কারাগারে রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, ঈদ একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান, খুশির উৎসব। আমাদের মধ্যে ঈদের সেই আনন্দ নেই, খুশি নেই। ঈদের দিন সকালে জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরাসহ নেতাকর্মীরা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করবেন। সেখান থেকে তারা জেলগেটে যাবেন। আমাদের নেতাকর্মীরা অনেকেই বলেছেন নেত্রীর প্রতি মনের টানে তারা জেলগেটে যাবেন। তবে সুনির্দিষ্টভাবে আমাদের ঈদের দিন কোনো কর্মসূচি নেই।

প্রতি বছরই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ঈদের দিন সকালে শেরেবাংলা নগর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে কূটনীতিক, গণমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করতেন। তবে ঈদের দিন খালেদা জিয়ার আত্মীয়স্বজনরা কারাবিধি অনুযায়ীই সাক্ষাতের সুযোগ পাবেন। তারা সকালেই কারাগারে যাবেন বলে জানা গেছে।