1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ১০:৫৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবি, ৩৩ বাংলাদেশি উদ্ধার নেত্রকোনায় বজ্রপাতে প্রাণ গেল সাতজনের সাংবাদিক রোজিনাকে হেনস্তার ঘটনা তদন্তে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কমিটি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ বন্ধুকে পাশাপাশি দাফন ভুল বিচারে ৩১ বছর জেলে দুই ভাই, ক্ষতিপূরণ সাড়ে ৭ কোটি ডলার! ‘ডকুমেন্টস সাংবাদিক রোজিনা নয়, সরকারি কর্মকর্তা উপস্থাপন করেছেন’ ফিলিস্তিন সংকট নিরসনে যুক্তরাষ্ট্রের শক্ত ভূমিকা চায় বাংলাদেশ জামিন পেলেন ফিরহাদ হাকিমসহ পশ্চিমবঙ্গের সেই ৪ নেতা ফিলিস্তিন ইস্যুতে নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের বিরোধী অবস্থান চীনের শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন দেওয়ার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে

আইসোলেশন ওয়ার্ডের জানালা ভেঙে পালালো আসামি!

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি থাকা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের এক আসামি জানালার গ্রিল ভেঙে পালিয়েছে।

রবিবার দিবাগত রাত পৌনে ১০টার দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি টের পায়। পরে তাকে আটকের জন্য অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

পালিয়ে যাওয়া আসামির নাম সুজন মল্লিক (২৫) ওরফে শাকিল। তিনি যশোর শহরের বারান্দী মোল্যাপাড়া বাঁশতলায় ভাড়া থাকতেন। তার বাড়ি রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের গাজীপাড়ায়।

হাসপাতাল ও পুলিশ জানিয়েছে, গত ১০ মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে আদালত থেকে সুজন মল্লিককে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় শরীরে জ্বর, সর্দি, কাশি দেখা দেয়ায় কারাগারের সহকারী সার্জন তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আসামিকে ভর্তি করে আইসোলেশনে পাঠায়।

হাসপাতালের আইসোলেশনে রবিবার রাত ৮টা থেকে পুলিশের দায়িত্ব পালন করছিলেন ন্যান্সনায়েক নাজমুল এবং কনস্টেবল আসাদ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালের আইসোলেশনের দায়িত্বরত নার্স তুলি রাত নয়টার দিকে আসামি সুজনকে পানি দেয়। এরপর রাত পৌনে ১০টার দিকে খাবার দিতে গেলে দরজা ভেতরে লক করা দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের জানায়। এ সময় তারা দরজা খোলার চেষ্টা করে না পেরে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তাকে পায়নি। এ সময় পেছনের জানালার গ্রিল ভাঙা অবস্থায় দেখতে পান তারা।

বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতাল ও পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হয়। খবর পেয়ে যশোর কোতয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) শেখ তাসলিম আলমসহ পুলিশের ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ, হাসপাতাল ও কারা কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরিফ আহমেদ আইসোলেশনে থাকা আসামি পালিয়ে যাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন।

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার তুষার কান্তি খানও হাসপাতালের আইসোলেশনে থাকা আসামি সুজনের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) তৌহিদুর রহমান জানান, পালিয়ে যাওয়া আসামিকে আটকের জন্য পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। আশা করছি খুব দ্রুত তাকে আটক করতে সক্ষম হবো।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com