1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ১১:১৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
তারা জন্ম নিয়েছিলেন একসঙ্গে, মৃত্যু হলো কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে লিবিয়া উপকূলে নৌকাডুবি, ৩৩ বাংলাদেশি উদ্ধার নেত্রকোনায় বজ্রপাতে প্রাণ গেল সাতজনের সাংবাদিক রোজিনাকে হেনস্তার ঘটনা তদন্তে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কমিটি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ বন্ধুকে পাশাপাশি দাফন ভুল বিচারে ৩১ বছর জেলে দুই ভাই, ক্ষতিপূরণ সাড়ে ৭ কোটি ডলার! ‘ডকুমেন্টস সাংবাদিক রোজিনা নয়, সরকারি কর্মকর্তা উপস্থাপন করেছেন’ ফিলিস্তিন সংকট নিরসনে যুক্তরাষ্ট্রের শক্ত ভূমিকা চায় বাংলাদেশ জামিন পেলেন ফিরহাদ হাকিমসহ পশ্চিমবঙ্গের সেই ৪ নেতা ফিলিস্তিন ইস্যুতে নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের বিরোধী অবস্থান চীনের

আসামে বন্যায় শতাধিক মানুষের মৃত্যু

আসামে বন্যায় ৭০ লাখ মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। ছবি: হিন্দুস্তান টাইমস

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: বন্যা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি ঘটায় ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় আসাম রাজ্যে এ পর্যন্ত ১১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আসাম রাজ্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (এএসডিএমএ) সর্বশেষ তথ্যে জানিয়েছে, এ পর্যন্ত এই মহাপ্লাবনে প্রায় ২৫ লাখ লোক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এএসডিএমএ জানায়, সোমবার সোনাপুর জেলায় ১ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১১ জনে।

সরকারি হিসাবে বলা হয়, গত কয়েক সপ্তাহে বন্যার পানিতে ডুবে ৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছে, ভূমিধসে মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের ।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলো হলো ধেমাজি, লখিমপুর, বিশ্বনাথ, দরং, বাক্সা, নলবাড়ি, বরপেটা, চিরাং, বঙাইগাঁও, কোকড়াঝাড়, ধুবড়ি, গোয়ালপাড়া, কামরূপ, মরিগাঁও, নগাঁও, গোলাঘাট, ডিব্রুগড়, তিনসুকিয়া ও কাছাড়।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গোয়ালপাড়া , এখানে ৪ লাখ ৫৯ হাজার লোক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, এরপরেই বরপেটা জেলায় ৩ লাখ ৩৫ হাজার লোক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাস্তুচ্যুত লোকদের রাজ্যজুড়ে অস্থায়ী ত্রাণ ক্যাম্পে আশ্রয় দেয়া হয়েছে।

এদিকে আসামের মুখ্যমন্ত্রীর বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, আসামের ৩৩ জেলার মধ্যে ২৪ জেলায় ৭০ লাখ মানুষ বন্যায় কবলিত হয়েছে। তারা ব্যাপক দুর্ভোগে রয়েছে। এছাড়া গবাদি পশুগুলোও চরম নাজেহাল অবস্থায় পড়েছে।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান টাইমস


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com