1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:৩৬ পূর্বাহ্ন

দায়িত্ব পেয়ে প্রথম দিনেই বক্স কালভার্টের ৭৪ টন আবর্জনা অপসারণ

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ঢাকা মহানগরীতে পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব পাওয়ার একদিন পর পান্থপথ বক্স কালভার্ট পরিষ্কার কাজ শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)।

শনিবার দিনভর কাওরান বাজার গোলচত্বর সংলগ্ন পান্থকুঞ্জ থেকে আবর্জনা অপসারণ করা হয়। প্রথম দিনে পান্থপথ বক্স কালভার্টের পাঁচটি মুখ থেকে ৭৪ টন আবর্জনা অপসারণ করা হয়।

জানা গেছে, হাতিরঝিল থেকে রাসেল স্কয়ার পর্যন্ত বিস্তৃত পান্থপথ বক্স কালভার্টের অন্তত ২৪টি মুখ রয়েছে। ধাপে ধাপে পুরো বক্স কালভার্ট পরিষ্কার করা হবে।

সরেজমিন দেখা গেছে, সকাল ৯টার দিকে পান্থকুঞ্জ পার্ক সংলগ্ন বক্স কালভার্টের ঢাকনা খুলে আর্বজনা পরিষ্কার করছে ডিএসসিসির কর্মীরা। পরিষ্কার কার্যক্রম সহজতর করতে আধুনিক যন্ত্রপাতিও ব্যবহার করা হয়। অনেকদিন পর সেখানে পরিষ্কার করতে দেখে আশপাশের মানুষের জটলা লেগে যায়।

দুপুরে পান্থকুঞ্জ এলাকার কার্যক্রম পরিদর্শন করেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম আমিন উল্লাহ নুরী, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমডোর বদরুল আমিন, ১৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম বাবলা ও ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আসাদুজ্জামান আসাদ প্রমুখ।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আমিন উল্লাহ নুরী বলেন, ডিএসসিসি মেয়রের বিশেষ আগ্রহে খাল, পানি নিষ্কাশন ড্রেন ও বক্স কালভার্টগুলো ডিএসসিসির আওতায় এসেছে। আগামী বর্ষার আগেই পানি নিষ্কাশন চ্যানেলগুলো (খাল, ড্রেন ও বক্স কালভার্ট) পরিষ্কার করে প্রবহমান রাখতে আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি। আশা করি, এ প্রচেষ্টা অনেকাংশে সফল হবে। মার্চের মধ্যে বক্স কালভার্ট ও খালগুলো পরিষ্কার করতে পারব বলে মনে করছি।

এ বিষয়ে বদরুল আমিন বলেন, ডিএসসিসির ওপর গুরুত্বপূর্ণ একটি দায়িত্ব এসেছে। মেয়রের নেতৃত্বে আমরা পরিচ্ছন্নতার কার্যক্রম শুরু করেছি। আশা করি, এসব কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে করার মাধ্যমে ডিএসসিসি এলাকার বক্স কালভার্ট, নর্দমা ও খালগুলো পানি নিষ্কাশনের উপযোগী হবে।

ডিএসসিসির সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রথম দিনে পান্থপথ বক্স কালভার্টের পাঁচটি ড্রেনেজ পিট থেকে ৭৪ টন বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। পান্থকুঞ্জ পার্কের ভেতরের বক্স কালভার্টটির গভীরতা দুই রকমের। এর গভীরতা কোথাও ১১ ফুট আবার কোথাও ২০-২২ ফুট। এক্ষেত্রে কারিগরি কমিটির সহযোগিতায় মাধ্যমে সঠিক মাপ বের করতে কাজ করছেন সংশ্লিষ্টরা।

তারা জানান, শুধু কালভার্টের (ড্রেনেজ পিট) পরিষ্কার করলে হবে না। ভেতরে পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও মেশিন প্রবেশ করাতে হবে। ক্রেন প্রবেশ করাতে হবে। পানি প্রবাহ বাড়াতে হবে। মেশিন ব্যবহার করে আবর্জনা ওঠাতে হবে। কালভার্টের ভেতরের সংযোগ মুখগুলো বন্ধ হয়ে রয়েছে। মুখগুলো পরিষ্কার করতে হবে। প্রথমে ২০০ মিটার করে পরিষ্কার করা হবে। পরবর্তীতে অন্য অংশ পরিষ্কার করা হবে।

প্রথম দিন সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত পান্থপথ বক্স কালভার্টের পাঁচটি ড্রেনেজ পিট থেকে ছয় ট্রিপে প্রায় ৭৪ টন বর্জ্য অপসারণ করা হয়। এরপর পান্থকুঞ্জ পার্কের অভ্যন্তরে এবং রাতে কাঁঠালবাগান ঢাল থেকে পান্থপথ মোড় পর্যন্ত পিটগুলোর বর্জ্য অপসারণ করা হবে। ড্রেজারের মাধ্যমে বর্জ্য অপসারণ করা হবে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কার্যক্রম স্বতন্ত্র করতে ১৯৬৩ সালে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর থেকে ঢাকা ওয়াসা গঠিত হয়। এরপর ১৯৮৮ সালে স্থানীয় সরকার বিভাগের এক সিদ্ধান্তে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব ঢাকার নগর সংস্থার ওপর দেয়া হয়। আর পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ আইন ১৯৯৬ এর ১৭(২) (ঘ) ধারা অনুযায়ী বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনসহ নিষ্কাশন সুবিধার জন্য ময়লা নির্গমন প্রণালী নির্মাণ ও সংরক্ষণের কাজ ঢাকা ওয়াসা করে থাকে। এ কার্যক্রমের আওতায় ঢাকার বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের লক্ষ্যে বর্তমান ঢাকা মহানগরীর ৮৪ দশমিক ৫ কিলোমিটার দীর্ঘ ২৬টি খাল, ৩৮৫ কিলোমিটার স্টর্ম ওয়াটার ড্রেন এবং ১০টি বক্স কালভার্ট সংরক্ষণ করে।

এর বাইরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ৯৫০ কিলোমিটার ড্রেন এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ১ হাজার ২৫০ কিলোমিটার পাইপ নর্দমা রয়েছে। এগুলো দিয়েও পানি নিষ্কাশন কার্যক্রম করা হয়। এসব এখন ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে থাকবে।

উল্লেখ্য, গেল বছরের ৩১ ডিসেম্বর ঢাকা ওয়াসার সঙ্গে সমঝোতা চুক্তির মাধ্যমে দায়িত্ব পায় ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন উত্তর ও দক্ষিণ।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com