1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন

এই মুহূর্তে জাতীয় দলে আশরাফুলের জায়গা নেই

মৃদুভাষণ ডেস্ক:: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) স্পট-ফিক্সিংয়ের অপরাধে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। ২০১৩ সালে বিপিএলে ম্যাচ-ফিক্সিংয়ের কথা শিকার করে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন এই ডান-হাতি ব্যাটসম্যান।

আজ সোমবার তার পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হচ্ছে। জাতীয় দল ও বিপিএলে খেলতে আর কোনো বাধা থাকবে না সর্বকনিষ্ঠ এই টেস্ট সেঞ্চুরিয়ানের। আশরাফুল এখন রয়েছেন ইংল্যান্ডে। সেখান থেকে এক ভিডিও বার্তায় জানালেন, জাতীয় দলে ফেরার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী।

জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক খেলার ব্যাপারে আশাবাদী হলেও দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু জানিয়েছেন এই মুহূর্তে আশরাফুলের জায়গা পাওয়ার সুযোগ নেই।

এ ব্যাপারে জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক সাংবাদিকদের বলেন, এই মুহূর্তে দলে কোনো জায়গা নেই। ও আমাদের ফিটনেস লেভেল, এইচপি, এ দল এবং জাতীয় দলের ফিটনেসের সঙ্গে নেই। জাতীয় দলে আসতে হলে ওকে সময় দিতে হবে। তাহলে চিন্তা করা যাবে। এই মুহূর্তে আমরা ওকে নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছি না।

আশরাফুলের বয়স এখন ৩৪। তবে প্রধান নির্বাচক বলছেন বয়স কোন বিষয় না, ফিটনেস এবং পারফরম্যান্স আন্তর্জাতিক মানের থাকলে জাতীয় দলে আসতে পারে।

প্রধান নির্বাচকই নন, আশলাফুল নিজেও জানেন এই মূহূতে তার দলে জায়গা পাওয়া সহজ হবে না। আশরাফুল বলেন, ‘এই মুহূর্তে বাংলাদেশ দলে জায়গা পাওয়া কঠিন। তারপরও আমি যদি পারফর্ম করি তাহলে দলে অনেক জায়গা আছে। এখনও বাংলাদেশ দলের জন্য অবদান রাখতে পারব, এটা আমার বিশ্বাস।’

দলে ফেরার ব্যাপারে আশরাফুল আরও বলেন, ‘খুবই ভালো লাগছে। এই দিনটার জন্য পাঁচ বছর ধরে অপেক্ষা করছিলাম। অপেক্ষায় ছিলাম ২০১৮ সালের ১৩ আগস্ট কবে আসবে, আমি তাহলে আবারও জাতীয় দল ও বিপিএলে খেলতে পারব। আজ আব্বা বেঁচে থাকলে বেশি খুশি হতেন। আব্বা নেই দু’বছর হল। তো আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন আমি যেন ভালো মতো ফিরতে পারি। বিশেষ করে ভক্তদের জন্য।’

বাংলাদেশ দলে এখন অনেক বিশ্বমানের খেলোয়াড়। তারপরও আশরাফুলের বিশ্বাস রয়েছে, তিনি জাতীয় দলে ফিরতে পারবেন। তিনি বলেন, ‘সর্বশেষ পাঁচ বছর কখনই মনে হয়নি যে আমি ফিরতে পারব না। কখনই বিশ্বাসের ঘাটতি হয়নি। সব সময় বিশ্বাস ছিল ফিরব। গত মৌসুমে ঢাকা লিগে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছিলাম, এবার প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট দিয়ে আবার ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করব। যদি ভালো করতে পারি তাহলে বাংলাদেশ দলের হয়ে আবার খেলার যে স্বপ্ন রয়েছে সেটা পূরণ হবে। জাতীয় দলে ফিরতে পারলে সেটাই আমার সবচেয়ে বড় পাওয়া হবে।’

পাঁচ বছর নিষিদ্ধ থাকার সময়টা অনেক কঠিন ছিল আশরাফুলের জন্য। এ সময় তাকে আত্মীয়স্বজনরা অনেক সমর্থন করেছেন। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই এই পাঁচটা বছর আমার জন্য কঠিন সময় গেছে। বিশেষ করে প্রথম দিকে যখন খেলতে পারছিলাম না। এখন ভালো লাগছে যে সেই বাধাটা উঠে গেছে। কঠিন সময়ে আমার পরিবার, বন্ধুরা পাশে ছিলেন। জাতীয় দলের খেলোয়াড়রাও অনেক সমর্থন দিয়েছে।’

আশরাফুল আরও বলেন, ‘ফর্মের যে দূরত্বটা হয়েছিল সেটা দু’বছর ঘরোয়া ক্রিকেট খেলে কমিয়ে আনার চেষ্টা করেছি। সামনের মৌসুমগুলোয় আরও ভালো করার চেষ্টা করব। এই সময়ে বিসিবির কর্মকর্তারা আমার পাশে ছিলেন, তাদেরও ধন্যবাদ জানাই।’


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com