1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

চীনের কড়া বার্তার পর পাকিস্তানের সুর বদল

এই বাসে করে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিদর্শনে যাচ্ছিলেন চীনের ৩০ প্রকৌশলী

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলের খাইবার পাখতুনওয়া প্রদেশে শক্তিশালী বিস্ফোরণে চীনের ৯ প্রকৌশলীসহ ১৩ জন নিহত হয়। ঘটনায় পর পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সন্ত্রাসীদের জড়িত থাকার সম্ভাবনা নাকচ করে দেয়।

কিন্তু চীনের কড়া বার্তার পর সুর বদলিয়েছে পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় দেশটির তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বলেন, কোহিস্তানে বাসে বিস্ফোরণে ৯ চীনা প্রকৌশলীসহ ১৩ জনকে হত্যার পেছনে সন্ত্রাসবাদীদের হামলার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। কেননা প্রাথমিক তদন্তে ঘটনাস্থলে বিস্ফোরকের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে।

ফাওয়াদ চৌধুরী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নিজে বিষয়টি তদারক করছেন। চীনা দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে কাজ করা হচ্ছে। পাকিস্তান ও চীন দুই দেশ যৌথভাবে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়বে।

এই ঘটনার পর তীব্র নিন্দা জানায় চীন। পাশাপাশি নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দেয় দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বুধবার নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান ইসলামাবাদের প্রতি চীনের নাগরিকদের সুরক্ষা নিশ্চিতে আহ্বান জানান। একই সঙ্গে এ ঘটনার দ্রুত স্বচ্ছ তদন্তেরও দাবি জানান তিনি।

ঘটনার পর হাজারার এক প্রশাসনিক কর্মকর্তা জানান, কোহিস্তানের দাসু এলাকায় চীনের অর্থায়নে একটি জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের কাজ চলছে। সেই কাজ তদারক করতে ৩০ চীনা প্রকৌশলীসহ কয়েকজন পাকিস্তানি প্রকৌশলী, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে বাসটি হাজারা থেকে কোহিস্তানের দিকে যাচ্ছিল। সে সময় পথমধ্যে এই বিস্ফোরণ ঘটে।

হামলার পর এক বিবৃতিতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ঘটনার তদন্ত সহায়তা এবং সমন্বয়ের জন্য তারা চীনের দূতাবাসের সঙ্গে গভীর যোগাযোগ রক্ষা করছেন। চীন ও পকিস্তান ঘনিষ্ঠ বন্ধু এবং দুই দেশের মধ্যে স্পাত কঠিন সম্পর্ক বিদ্যমান। চীনের নাগরিকদের নিরাপত্তা এবং সুরক্ষায় পাকিস্তান ব্যাপক গুরুত্ব দেয়।

দাসু হাইড্রোপাওয়ার প্লান্ট চায়না-পাকিস্তান ইকোনমিক করিডরের (সিপিইসি) একটি প্রকল্প। দুই দেশের মধ্যকার আন্তযোগাযোগ বাড়াতে সড়ক, রেলপথ ও পাইপলাইন বসানোর প্রকল্পে ৬৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। সেখানে বেশ কয়েক বছর ধরে চীনের অনেক প্রকৌশলী ও পাকিস্তানি শ্রমিকেরা কাজ করছেন।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com