1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৭:০৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
‘ভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বিশ্বের জন্য উদ্বেগ’, প্রতিবেশীদের জন্য অশনি সঙ্কেত কালবৈশাখী ঝড়ে দৌলতদিয়া ঘাটের পন্টুন ছিঁড়ে পদ্মায় মাইক্রোবাস আন্দোলনের মুখে বাড়ল ঈদের ছুটি রাশিয়া-চীনের তৈরি বিপুল অস্ত্রের চালান জব্দ করল যুক্তরাষ্ট্র হটস্পট দক্ষিণ এশিয়া, ভারতের প্রতিবেশীদের জন্য অশনি সংকেত মমতার নতুন মন্ত্রিপরিষদে সংখ্যালঘু ৭ মুসলিম আফগানিস্তানে স্কুলে জঙ্গি হামলায় নিহত বেড়ে ৬৮, বেশিরভাগই স্কুলছাত্রী ভারতের যে রাজ্যে প্রতি দুজনের একজন করোনা পজিটিভ করোনায় বিপর্যস্ত ভারতে আরও ৪ হাজারের বেশি মৃত্যু সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা নিয়ে এবার ‘আদালত অবমাননার’ অভিযোগ

মাশরাফি বললেন জরুরি কথাটা

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ওয়ানডে সিরিজ জিতিয়েই আবার ছুটি মিলেছিল। সেই ছুটি কাটিয়ে মাশরাফি বিন মুর্তজা দেশে ফিরেছেন একটু দেরিতে। তবে ঈদের আগে দেশে ফিরতেনই। খুব বাধ্য না হলে নড়াইল ছাড়া তাঁকে ঈদ করতে দেখা যায় না। এবারও নিজের প্রিয় শহর, প্রিয় বন্ধুদের সঙ্গে ঈদ উদ্‌যাপন করছেন। এর মধ্যে মনে করিয়ে দিয়েছেন খুব গুরুত্বপূর্ণ কথাটাও। কোরবানির পশুর রক্ত ও বর্জ্য যেন সবাই সাধ্যমতো পরিষ্কার করে।

আজ বুধবার সকালে দলবল নিয়েই হাজির হয়েছিলেন নড়াইলের কেন্দ্রীয় ঈদগাহে। পাশে ছেলে সাহেল মুর্তজা, সঙ্গে মামা নাহিদুল ইসলাম, ছিলেন ছোট ভাই সিজার ও তাঁর বন্ধুরাও। ছেলে সাহেলের মতোই বাংলাদেশ অধিনায়ক পরেছিলেন মেরুন রঙের ওপর কালো জলছাপ দেওয়া পাঞ্জাবি আর কালো পায়জামা। তবে তাঁর স্বজন তো আসলে দেশজুড়ে। দেশের বাইরেও। ভক্ত নামের সেই স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে মাশরাফি ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন।

সেখানে বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক লিখেছেন, ‘ঈদের শুভেচ্ছা। ঈদের দিনটি সুন্দর, আনন্দময় হোক। পরিবারের সবার সঙ্গে ঈদের আনন্দে মেতে থাকুন সবাই, শুভেচ্ছা রইল। একটু মনে রাখবেন, আশপাশের পরিবেশের দিকে। আমরা নিজেরা যাতে আমাদের সাধ্যমতো পরিষ্কার করে ফেলি কোরবানির পর।’

পরিবেশ-সচেতন মাশরাফি এর আগেও একবার বলেছিলেন, দেশকে পরিষ্কার করাটাও দেশপ্রেম। রাস্তায় না ফেলে ডাস্টবিনে কলার ছোলাটা ফেলার মধ্যেও আছে দেশপ্রেম। সবাই যদি নিজের বাড়ির আঙিনা পরিষ্কার করত, তাহলে পুরো দেশটাই অন্য রকম হতো।

মাশরাফি আরও একটি বিষয়ে সবার সচেতনতা কামনা করেছেন। কেউ যেন সড়ক দুর্ঘটনায় না পড়ে, কেউ যেন নিজের ও অন্যের সড়ক দুর্ঘটনার কারণও না হয়। ঈদে ঘটে যাওয়া সড়ক দুর্ঘটনাগুলো খুব মর্মান্তিক পরিণতি ডেকে আনে। সেই পরিবারগুলো আর কখনোই ঈদ উদ্‌যাপন করতে পারে না। ঈদ এলেই তাদের মনে পড়ে যায় স্বজন হারানোর যন্ত্রণা। মাশরাফি নিজেও তাঁর খুব কাছের বন্ধু মানজারুল ইসলামকে হারিয়েছেন সড়ক দুর্ঘটনায়। ঈদে সবাই যেন নিরাপদে যাতায়াত করতে পারে, সেই প্রার্থনাও করেছেন মাশরাফি, ‘যাঁরা প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদের ছুটিতে দেশের বাড়িতে এসেছেন, খুব সাবধানে আবার কর্মস্থলে ফিরে আসুন। কোনো দুর্ঘটনা যেন না ঘটে। আমার এবং আমার পরিবারের জন্য দোয়া করবেন সবাই।’


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com