1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:০৫ অপরাহ্ন

ফরিদপুরে আ’লীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় আওয়ামী লীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষে সাখাওয়াত হোসেন সাকা মাতুব্বর (৫৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ সময় নারীসহ কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার সন্ধ্যায় সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের ভাবুকদিয়া এবং আটঘর ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া ও খোয়াড় গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষের সময় ওদুদ মাতুব্বর গ্রুপের সমর্থক খোয়াড় গ্রামের সাখাওয়াত হোসেন সাকা মাতুব্বরকে (৫৫) দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

এ সংঘর্ষ কেন্দ্র করে বেশ কয়েকটি বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সালাথা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও আটঘর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল হাসান খান সোহাগের সঙ্গে গট্টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওদুদ মাতুব্বরের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল।

এরই জের ধরে সোমবার সন্ধ্যায় ভাবুকদিয়া, গোয়ালপাড়া ও খোয়াড় গ্রাম এলাকায় উভয়পক্ষের সমর্থকরা রামদা, স্যানদা, ঢাল, বল্লম, ইটপাটকেলসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ চলে। এ সংঘর্ষে গোয়ালপাড়া গ্রামের জমিরন বেগম (৫২), সুফিয়া বেগম (৩৮) ও পারভিন বেগমসহ (৩২) উভয়পক্ষের কমপক্ষে ২৫ জন আহত হন।

আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষের সময় ওদুদ মাতুব্বর গ্রুপের সমর্থক খোয়াড় গ্রামের সাখাওয়াত হোসেন সাকা মাতুব্বরকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে সোহাগ খানের সমর্থকেরা। হত্যা কেন্দ্র করে বাড়িঘর ভাঙচুরসহ ব্যাপক লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে।

পুনরায় সংঘর্ষ, বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের আশঙ্কায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সালথা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন খান বলেন, ঘটনাস্থলে অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com