1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন

মিঠুনের প্রথম ফিফটি

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম ফিফটি মোহাম্মদ মিঠুনের। এশিয়া কাপের চলমান আসরে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৫০ রান করেছেন বাংলাদেশ দলের এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান।

শনিবার দুবাইয়ে শ্রীলংকার বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ দল। মাত্র ৩ রানে লিটন-সাকিব এবং তামিমের (ইনজুরি) উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় বাংলাদেশ দল।

সেই অবস্থা থেকে দলকে উত্তরণ করেন মোহাম্মদ মিঠুন ও মুশফিকুর রহিম। তৃতীয় উইকেটে ১৩২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন তারা।

লাসিথ মালিঙ্গার তৃতীয় শিকারে পরিণত হওয়ার আগে ৬৮ বলে পাঁচ চার ও দুই ছক্কায় ৬৩ রান সংগ্রহ করেছেন মিঠুন।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ২৬ ওভারের খেলা শেষে ১৪০ রান। ৬৮ ও ০ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মুশফিক-মোসাদ্দেক।

২০১৪ সালে ভারতের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে জাতীয় দলে অভিষেক হয় মিঠুনের। এরপর আসা-যাওয়ার মধ্যেই ছিলেন তিনি।

শনিবার দুবাইয়ে জাতীয় দলের হয়ে নিজের ক্যারিয়ারের চতুর্থ ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নামেন মিঠুন।

সুরেশ রায়নার নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলের বিপক্ষে অভিষেক ম্যাচ তিন নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নামা মিঠুন করেছিলেন ২৬ রান। এত দিন সেটাই ছিল তার তিন ম্যাচের ওয়ানডে এবং ১৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টির ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস।

এরপর দীর্ঘ চার বছর পর চলতি বছরের জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজে জাতীয় দলে সুযোগ হয় তার। ওয়ানডে ফরম্যাটে লম্বা সময় জাতীয় দলের বাইরে থাকা মিঠুন সুযোগ পান এশিয়া কাপের দলে।

তবে ২০১৪ সালে দুটি ওয়ানডে খেলে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ে যাওয়া মিঠুন, ২০১৬ সালে ১০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান। কিন্তু কোনো ম্যাচেই নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিতে পারেননি। ক্রিকেটের ক্ষুদ্র ফর্মেটে ১৩ ম্যাচ খেলে মাত্র ৯০ রান করেন তিনি। এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেছিলেন মিঠুন।

তবে চার বছর পর ওয়ানডেতে পাওয়া সুযোগ কাজে লাগাচ্ছেন মিঠুন। জাতীয় দলের এই অনিয়মিত সদস্য চেষ্টা করছেন নিজের জায়গা পাকাপোক্ত করতে।

শনিবার অবশ্য এশিয়া কাপে ফেরার ম্যাচেই শুরুতে বিপদে পড়েছিলেন মোহাম্মদ মিঠুন। কিন্তু ভাগ্য ফেবারে থাকায় বেঁচে গেলেন তিনি। লাসিথ মালিঙ্গার মিড উইকেটে ক্যাচ তুলে দেন মিঠুন। কিন্তু শ্রীলংকান অধিনায়ক অ্যাঞ্জোলো ম্যাথিউস বাতাসে ভাসা ক্যাচটি নিতে না পারায় রক্ষা পান বাংলাদেশ দলের এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। শুধু তাই নয়, পঞ্চম ওভারেও ফের মালিঙ্গার বলে ক্যাচ তুলে দেন মিঠুন। ফাইন লেগের ফিল্ডার ক্যাচ মিস করেন। তবে তার আগেই আম্পায়ার সংকেত দেন নো বলের।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com