1. ahmedshuvo@gmail.com : admi2018 :
  2. mridubhashan@gmail.com : Mridubhashan .Com : Mridubhashan .Com

মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৩:২৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
‘ভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বিশ্বের জন্য উদ্বেগ’, প্রতিবেশীদের জন্য অশনি সঙ্কেত কালবৈশাখী ঝড়ে দৌলতদিয়া ঘাটের পন্টুন ছিঁড়ে পদ্মায় মাইক্রোবাস আন্দোলনের মুখে বাড়ল ঈদের ছুটি রাশিয়া-চীনের তৈরি বিপুল অস্ত্রের চালান জব্দ করল যুক্তরাষ্ট্র হটস্পট দক্ষিণ এশিয়া, ভারতের প্রতিবেশীদের জন্য অশনি সংকেত মমতার নতুন মন্ত্রিপরিষদে সংখ্যালঘু ৭ মুসলিম আফগানিস্তানে স্কুলে জঙ্গি হামলায় নিহত বেড়ে ৬৮, বেশিরভাগই স্কুলছাত্রী ভারতের যে রাজ্যে প্রতি দুজনের একজন করোনা পজিটিভ করোনায় বিপর্যস্ত ভারতে আরও ৪ হাজারের বেশি মৃত্যু সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গাছ কাটা নিয়ে এবার ‘আদালত অবমাননার’ অভিযোগ

অন্তঃস্বত্তা স্ত্রীর সেবায় শিশু অপহরণ!

মৃদুভাষণ ডেস্ক :: ন্তঃস্বত্তা স্ত্রী শাহনাজের সেবা করার জন্য ওই শিশুটিকে অপহরণ করেছিলেন একাধিক বিয়ে করা এক কবিরাজ।

এ ঘটনায় অপহরণকারী কবিরাজ হারুনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার সকালে জেলা পুলিশ সুপার মোহম্মদ মইনুল হাসান সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ঘটনার বিবরণ দিয়ে পুলিশ সুপার জানান, গত ৮ সেপ্টম্বর দশমিনা উপজেলা চাঁনপুরা বাসিন্দা মো. সাইফুল ইসলামের ৭ম শ্রেণিতে পড়ুয়া শিশু কন্যা আয়েশা আক্তার মাদরাসায় যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনার আয়েশার বাবা সংশ্লিষ্ট থানায় একটি জিডি করেন।

২৮ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরেও আয়েশার খোঁজ না পেয়ে তার বাবা দশমিনা থানায় নারী ও শিশু দমন নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১৬/১৮। এরপরে পুলিশের কয়েকটি দল অনুসন্ধান শুরু করে। এ ঘটনায় পুলিশ হারুন নামে এক কবিরাজকে সন্দেহ করে। কবিরাজ হারুন ঠিকানা বিহিন হওয়ায় পুলিশ রাজবাড়ী, ফরিদ, মাদারিপুরসহ আটটি জেলায় অভিযান চালায়। কিন্তু আয়েশার সন্ধান মেলেনি।

অনুসন্ধানের ৩৭ দিন পরে গত বৃহস্পতিবার পুলিশ রাজধানীর মুগদাপাড়া থেকে আয়েশাকে উদ্ধার করে। এসময় অপহরণকারী কবিরাজ হারুনকে আটক করে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হারুন জানান, তার অন্তঃস্বত্তা স্ত্রী শাহনাজের সেবা করার জন্য আয়েশাকে অপহরণ করা হয়েছে। তবে শিশুটি যৌন হয়রানীর শিকার হয় বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানান।

তবুও পুলিশ মেডিকেল পরীক্ষাসহ প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিয়েছে।

পুলিশ সুপার জানান, ঠিকানাবিহীন হারুন দীর্ঘদিন দশমিনা এলাকার গ্রামের সহজ সরল মানুষদের ঝাড়-ফুঁক দিয়ে চিকিৎসা চালিয়ে আসছিলেন। হারুনের বিভিন্ন স্থানে একাধিক স্ত্রী রয়েছে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত মৃদুভাষণ - ২০১৪
Design & Developed BY ThemesBazar.Com